অব্যক্ত ভালবাসা

লিখেছেন - আসিফ শুভ | লেখাটি 1760 বার দেখা হয়েছে

ইউনিভার্সিটিতে আমরা এক সাথে পড়তাম । মেয়েটির নাম মাধবী । আমি মাধবীকে ক্যাম্পাসে মাঝে মাঝেই দেখতাম । সবসময় একা একা থাকতো ও । সবাই আড্ডা দিতো কিন্তু মাধবী চুপচাপ বসে থাকতো । ওর সাথে কেউ খুব বেশি কথাও বলতো না ।

 

আমি মাধবীকে যখন দেখতাম , তখন ওর একাকীত্ব আমার চোখে পড়েনি । ভাবতাম , পড়াশোনা নিয়ে মেয়েটা অতিমাত্রায় ব্যস্ত । তাই কারো সাথে কথা বলে না হয়তো ।

 

এবার আমার কথা বলি । আমিও চুপচাপ ছিলাম । তবে আমার বন্ধু ছিলো অনেক । কেনো জানি না , তবে আমি বেশ জনপ্রিয় ছিলাম । একারনেই হয়তো মাধবী আমাকে আগে থেকেই চিনতো । আমার নাম জানতো । যদিও আমি ওর নাম জানতাম না ।

 

একদিন ক্লাস শেষে আমি হেটে যাচ্ছিলাম । মাধবী আমাকে ডাকলো । আমি বললাম ,

-আমাকে বলছো ?

 

-তুমি তো শুভ । তাই না ?

 

-হ্যা । কিছু বলবা ?

 

-আমার নাম জানতে চাও না ?

 

আমি একটু অবাক হলাম । যে মেয়ে এতো চুপচাপ , সে এভাবে কথা বলছে ! আমি বললাম ,

-জানতে চাই ।

 

-আমি মাধবী ।

 

-Nice to meet you.

 

মাধবী মিষ্টি করে হাসলো । আমি আবার বললাম ,

-আসলে আমার একটু তাড়া আছে । তুমি কি কিছু বলবা ?

 

-ওহ । যদি সমস্যা না হয় , তাহলে কি তোমার মোবাইল নাম্বারটা দেয়া যাবে ? আমি তোমার সাথে যোগাযোগ করে নিবো ।

 

আমি ইতস্তত করে বললাম ,

-নাম্বার দিতে সমস্যা নাই । কিন্তু তুমি কি ইমপরটেন্ট কিছু বলবা ?

 

মাধবী রহস্য করে একটা হাসি দিলো । বললো ,

-সেটা সময়ই বলে দিবে ।

 

আমি আর কথা বাড়ায় নি । নাম্বার দিয়ে চলে এসেছিলাম । এরপর প্রায় প্রতিরাতে মাধবী আমাকে ফোন দিতো । অনেকক্ষন কথা বলতো । প্রথম প্রথম ও শুধু প্রশ্ন করতো । আমি উত্তর দিতাম । কিন্তু আস্তে আস্তে খেয়াল করলাম , আমি মাধবীর সাথে গল্প করা শুরু করেছি । ও আমাকে ওর একাকীত্বের কথা বলতো । আমারও ইচ্ছে করতো , ওর পাশে বসে থাকি । ওর দুঃখ গুলো ভুলিয়ে দিই ।

 

তবে আমি কখনোই মাধবীকে ফোন করতাম না । আমাদের যখন বেশ ভালো বন্ধুত্ব হয়ে গেলো , তখন মাধবী প্রায়ই অভিযোগের সুরে বলতো , তুমি কেনো আমাকে কখনো ফোন করো না ?

আমি সুবিধামত প্রশ্নটা এড়িয়ে যেতাম ।

 

এভাবে আমাদের কথা চলতে লাগলো । আমরা একে অন্যের সুখ দুঃখের সাথী হয়ে গেলাম । রাতে আমরা মোবাইলে কথা বলতাম । ক্লাস শেষে একসাথে কিছুক্ষন হাটতাম । ক্যানটিনে একসাথে খেতাম ।

মাধবী আমাকে বলতো যে আমিই ওর একমাত্র বন্ধু । আমি যেন কখনো ওকে ছেড়ে না যাই । আমিও মাধবীকে কথা দিয়েছিলাম । ছেড়ে যাবো না ।

 

আস্তে আস্তে একপর্যায়ে এসে মাধবীর কথাবার্তা শুনে আমি confused হতে শুরু করলাম । আমার মনে বারবার একই প্রশ্ন ঘুরতে লাগলো : মাধবী কি আমাকে ভালোবেসে ফেলেছে ?

 

একদিন রাতে মাধবী ফোন করতে কিছুক্ষন লেট করলো । ঐ সময়টা আমি নিজের অজান্তেই অস্থির হয়ে গেলাম । খুব চিন্তা হচ্ছিলো । অবশ্য নিজে ফোন করিনি । তবে ফোন করতে খুব ইচ্ছে করছিলো । সেই থেকে আমি নিজেকে নিয়ে confused হয়ে গেলাম । আমি কি মাধবীকে ভালোবেসে ফেলেছি ?

 

আমার মনে কোথাও একটু অহংকার ছিলো । তাই নিজের confusion দূর করার জন্য শক্ত হলাম । মাধবীর জন্য নিজের দুর্বলতা লুকিয়ে ফেললাম ।

 

পরদিন মাধবীর সাথে দেখা হলো । আমি ভেতরে ভেতরে কৌতুহলে ফেটে পড়ছিলাম । কেনো ও কাল ফোন করলো না ?

তবে কৌতুহল প্রকাশ করিনি ।

কথার এক পর্যায়ে মাধবী জিজ্ঞেস করলো ,

-কাল রাতে কি কি করেছো ?

 

আমি আনমনা হওয়ার ভান করলাম । বললাম ,

-আআআআ .. ভুলে গেছি । মনে নাই !

 

মাধবী মন খারাপ করে বললো ,

-কাল গেস্ট আসছিলো । তাই ফোন করতে পারিনি । তুমি তো অন্তত ফোন করতে পারতা । করো নি কেনো ? আচ্ছা , তুমি কি আমাকে জীবনেও ফোন করবা না ?

 

আমি কি বলবো বুঝতে পারছিলাম না । কিভাবে এতোটা নিষ্ঠুর হলাম , জানি না । বললাম ,

-ক্লাস শুরু হয়ে যাবে । পরে কথা হবে । এখন ক্লাসে চলো ।

 

একরাশ অভিমান নিয়ে মাধবী হাটতে শুরু করলো ।

 

ঐদিন বিকালে আমার খুব খারাপ লাগছিলো । আমি কেনো এমন করলাম ? নিজেকে খুব নিচ মনে হচ্ছিলো । মাধবীকে ফোন করলে আমার কি এমন ক্ষতি হতো ? আমি জানি , মাধবী আমাকে ভালোবাসে । আমিও মাধবীকে ভালোবাসি । তাহলে কেনো এতো লুকোচুরি ? মাধবী মেয়ে , তাই হয়তো মুখ ফুটে কথাটা বলতে পারছে না ।

সিদ্ধান্ত নিলাম , আমি আজ রাতে আমার না বলা ভালোবাসাকে ফোন করবো । তারপর যা বলার , সব বলবো ।

 

রাত নয়টা । আমি মাধবীর নাম্বারে ফোন করলাম । মোবাইল বন্ধ । অনেক বার ট্রাই করলাম । হলো না ।

মাধবীর নাম্বারে একের পর এক ফোন করলাম  । কিন্তু সংযোগ পাওয়া গেলো না । মোবাইল বন্ধ ।

 

একটু পর খবর পেলাম । মাধবী accident এ মারা গেছে । স্পট ডেড্ ।

 

এক মুহুর্তে আমার পৃথিবী স্তব্ধ হয়ে গেলো । আমার চোখ তখনো মোবাইল স্ক্রিনের দিকে । মাধবীর নাম্বারে আর কখনো ফোন করা হবে না ।

 

আমি অনেক দেরি করে ফেলেছি ।

 

Share